যুক্তরাষ্ট্রের দিকে ধেয়ে আসছে ভয়ংকর হারিকেন ‘লোটা’

২৬০ কিলোমিটারের বেশি বাতাসের গতিবেগ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যভাগের দিকে ধেয়ে আসছে শক্তিশালী হারিকেন লোটা। একে পাঁচমাত্রার হারিকেন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার পূর্বাভাস দিয়েছে, এই ঘূর্ণিঝড়টি যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাপক তাণ্ডব চালাতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এতে অনেকের প্রাণহানি হতে পারে। হারিকেনের প্রভাবে তীব্র ঝড় ও বন্যা দেখা দিতে পারে বলেও সতর্ক করা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড়টি নিকাগুরার পূর্বদিকের প্রত্যন্ত অঞ্চলে অবস্থান করছে। প্রতিবেশী দেশ হন্ডুরাসের প্রেসিডেন্ট হুয়ান অরল্যান্ডো হার্নান্দেজ ঘূর্ণিঝড়টিকে বোমার সঙ্গে তুলনা করেছেন।

লোটাকে আটলান্টিক অঞ্চলের সবচেয়ে শক্তিশালী হারিকেন হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। সর্বশেষ পঞ্চম মাত্রার হারিকেন আঘাত হেনেছিল ১৯৩২ সালে।

হন্ডুরাসের প্রেসিডেন্ট হুয়ান অরল্যান্ডো হার্নান্দেজ, গুয়েতেমালার প্রেসিডেন্ট আলেসান্দ্রো গিয়ামত্তে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ’জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে মধ্য আমেরিকা সবচেয়ে বেশি ক্ষতগ্রস্ত অঞ্চল। এ সময় তারা এ মাসের শুরুতে তান্ডব চালানো হারিকেন ইটার ক্ষয়ক্ষতির পরিমান তুলে ধরেন।’

সফির-সিম্পসন হারিকেন স্কেলে, প্রতি ঘণ্টায় ১১৯-১৫৩ কিলোমিটার গতিবেগ থাকলে তা হলো প্রথম ক্যাটাগরির হারিকেন। এভাবে ১৫৪-১৭৭ দ্বিতীয়, ১৭৮-২০৮ তৃতীয়, ২০৯-২৫১ চতুর্থ ও ২৫২ কিলোমিটার/ঘণ্টা বা এর বেশি হলো পাঁচমাত্রার হারিকেন।

মধ্য আমেরিকায় পৌছানোর আগে ঝড়টি ক্যারিবীয় অঞ্চলে কলম্বিয়ান দ্বীপে আঘাত হানে। সেখানে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। দেশটির রাষ্ট্রপতি ডিউক বলেছেন, এই ঝড়ের কারণে দ্বীপটি অনেক বাজেভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারত। কারণ, এখানে যোগাযোগব্যবস্থা খুবই খারাপ ছিল। ঘূর্ণিঝড়টি ইতোমধ্যেই কলম্বিয়ার ক্যারিবীয়ান উপকূলে অবস্থিত জনপ্রিয় পর্যটনকেন্দ্র কার্টেগোনায় বন্যার সৃষ্টি করেছে।

মাত্র দুই সপ্তাহ আগেই আঘাত এনেছিল আরেকটি হারিকেন ইটা। এর ফলে কিছু কিছু অঞ্চলে এখনো জলাবদ্ধতা কাটেনি। এসব অঞ্চলে ধাবমান এ ঝড়ের ফলে বৃষ্টিপাত হলে এর প্রভাব হবে মারাত্মক। আগের এ হারিকেনের তান্ডবে কমপক্ষে ২০০ জন মানুষ মারা গিয়েছিল। এটি সবচেয়ে বড় আঘাত হেনেছিল গুয়েতমালার মধ্য আলতা ভেরাপাজ অঞ্চলে।

এদিকে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে উপকূলীয় এলাকা থেকে লোকজনকে সরিয়ে নেওয়ার কাজ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *