Monday , June 14 2021

বিয়ের দিন মেয়েরা যা নিয়ে চিন্তায় থাকে






বিয়ে জীবনের অন্যতম গু’রুত্বপূর্ণ দিন। আর তাই এই দিন নিয়ে যেমন উত্তেজনা থাকে, তেমনই টেনশনও থাকে অনেক। বিয়ের দিন সকালে থেকেই হই-হুল্লোড়, আচার-অনুষ্ঠান, কাজে’র চা’পে টেনশন ক’রতে

থাকেন বেশির ভাগ কনেই। এই দিন টেনশন না করে শান্ত থাকার চেষ্টা করুন। তা হলে দিনটা আরও ভাল ভাবে উপভো’গ ক’রতে পারবেন। এই কাজগুলো বিয়ের দিন সকালে করুন অবশ্যই।






বিয়ের দিন ভোর বেলা উঠে খাওয়া উচিৎ। বাঙ্গালি সংস্কৃতিতে আগে বিয়ের দিন সকালে কনেকে ভাত ও ঘটি বাড়িতে কনেকে দই-চিঁড়ে খাওয়ানো হত। তাই ভাল করে খেয়ে নিন। কারণ এর পর হয়তো সারা দিন খেতে পারবেন না। নিজেকে এনার্জেটিক রাখতে ভাল করে ব্রেকফাস্ট করা প্রয়োজন।

তবে, বেশির ভাগ পরিবারেই বিয়ের দিন না খেয়ে থাকার নিয়ম। বিশেষ করে ভাত না খাওয়ার নিয়ম থাকে। না খেয়ে থাকলে অ্যাসিডিটি, মাথা য’ন্ত্রণার স’মস্যা হতে পারে। তাই নিজেকে হাইড্রেটেড রাখা জ’রুরি। সারা দিন ফলের রস, দইয়ের ঘোল বা লেবু, আদা, শশা দেওয়া রিফ্রেশিং ওয়াটার খান।






এই দিন অনেক কাজ থাকবে। পার্লারে যাওয়ার জন্য জিনিসপত্র গোছানো, ফটোগ্রাফারের স’ঙ্গে যোগাযোগ রাখা। সব মিলিয়ে টেনসন করা খুব স্বা’ভাবিক। কী কী কাজ করেছে তার একটা প্রায়োরিটি লিস্ট তৈরি করে রাখু’ন। তা হলে মাথায় রাখা সহজ হবে।

সকালের আচার-অনুষ্ঠান শেষ হতে হতেই সাজতে পার্লারে যাওয়ার সময় এসে যাবে। শাড়ি, গয়না, জুতো সব কিছু গুছিয়ে পার্লারে নিয়ে যেতে হবে। আপনি বিদ্ধি, গায়ে হলুদ নিয়ে ব্যস্ত থাকবেন। তাই কোনও ব’ন্ধু বা বোনকে দায়িত্ব দিন আপনার জিনিসপত্র ঠিকঠাক গুছিয়ে দিতে ও নিজে’র দায়িত্বে রাখতে। বেরনোর সময় যাতে তাড়াহুড়ো না ক’রতে হয়।






ফোনে চার্জ আছে কিনা অবশ্যই দেখে নিন। এ দিন ফ্লোরিস্ট, ফোটোগ্রাফার অনেকের জ’রুরি কন্ট্যাক্ট থাকবে আপনার ফোনে। আবার সন্ধেবেলা অনুষ্ঠানের সময়ও অনেক ফোন আসবে।

ফোনের চার্জ ফুরিয়ে গেলে বি’পদে পড়বেন। তাই ফোন চার্জ দিয়ে রাখু’ন। বিয়ে মানে কিন্তু পরদিনই আপনাকে বাড়ি থেকে চলে যেতে হবে। তারপর হানিমুন। আবার কবে বাড়িতে আসবেন জা’নেন না। তাই ব্যাগে সব জিনিস ঠিকঠাক গুছিয়েছেন কিনা দেখে নিন। অবশ্যই ব্যাগ আগে






থেকে গুছিয়ে রাখবেন, বিয়ের দিনের জন্য ফে’লে রাখবেন না। এ দিন শুধু আরেক বার দেখে নিন প্রতিদিনের কাজে’র সব প্রয়োজনীয় জিনিস, হানিমুনের প্রয়োজনিয় জিনিস নিয়েছেন কিনা। যদি বেশি টেনসন করেন তা হলে কিন্তু চেহারায় কালি পড়ে যাবে। তাই সবচেয়ে আগে প্রয়োজন রিল্যাক্স করা। বাড়িতে অনেক হই হুল্লোড় চললেও নিজেকে রিল্যাক্সড রাখু’ন।